‘দুই প্রকার মানুষের দায়িত্ব কাঁধে নিয়েছি’

707

শোবিজ বাংলা প্রতিবেদক: ঢালিউডের অনিন্দ্য সুন্দরী নায়িকা পরীমনি। শেষ করেছেন ইফতেখার শুভ’র ‘মুখোশ’ ছবির কাজ। ছবির কাজ শেষে মন খারাপ তার। মনে হচ্ছে চমৎকার একটা ভ্রমণ শেষ করলেন।

লাস্যময়ী এ নায়িকা জানালেন, সুন্দর একটা ভ্রমণ শেষ করলে এক ধরনের মন খারাপের অনুভূতি কাজ করে। এখন আমার তেমনই অনুভূতি হচ্ছে। গানের শুটিং বাকি আছে। সেগুলো সময়-সুযোগ করে হয়ে যাবে।

সহসাই রাশিদ পলাশের ‘প্রীতিলতা’ ছবির শুটিংয়ে অংশ নেওয়ার কথা জানালেন পরী। তিনি বলেন, এবার ‘প্রীতিলতা’ চরিত্রের মূল অংশের চিত্রধারণ করা হবে। চলতি মাসেই শুটিং হওয়ার সম্ভাবনা আছে।

ঈদে প্রচার হওয়া নাটক, ওয়েব সিরিজ দেখেছেন পরী। এবার কিছু কাজে ফিল্মিক একটা আমেজ খুঁজে পেয়েছেন তিনি। ওয়েব প্লাটফর্মে কাজ করবেন কিনা জানতে চাইলে সুন্দরী এ নায়িকা বলেন, ভালো গল্প ও চরিত্র পেলে আমি কাজ করব। সেটা ওয়েব ফিল্ম হোক বা সিনেমা, এসব নিয়ে আমার চিন্তা নেই।

সোশ্যাল মিডিয়ায় বরাবরই আলোচনায় থাকেন পরী। কিছুদিন আগে ডিজেবল হয়ে গেছে তার ফেসবুক আইডি। পরী বলেন, এ নিয়ে আমার দুটি আইডি ডিজেবল হলো। প্রথমদিকে কষ্ট হলেও এখন অভ্যস্ত হয়ে গেছি। ফেসবুক না থাকায় অপ্রয়োজনে মন খারাপ হয় না। আমি নিজের কাজে মনোযোগ দিতে পারছি। অনেক সময় বেঁচে যাচ্ছে। ভারমুক্ত থাকতে পারছি। আমি অনেক খুশি।

সাইবাল বুলিং সাম্প্রতিক কালে বেড়েছে। এ প্রসঙ্গে পরীর ভাষ্য, আগে পেজের মন্তব্য দেখতাম না। এখন নিজস্ব আইডি না থাকায় সেগুলো দেখার সুযোগ হচ্ছে। তাদের সাইকোলজি বোঝার চেষ্টা করছি। কেউ কেউ একাধিক মন্তব্য বারবার করছে, অনেকে ফেক আইডি দিয়ে মন্তব্য করে যায়। প্রথমদিকে মন খারাপ হলেও এখন মন খারাপ হয় না। কে কী মন্তব্য করবে এটা তার ব্যাপার। আমি কীভাবে সে মন্তব্য গ্রহণ করব সেটা আমার ব্যাপার।

এরপর মজার ছলে পরী বলেন, দুই প্রকার মানুষের দায়িত্ব কাঁধে নিয়েছি। এক দল আমার ভক্ত, আরেক দল যারা আমাকে দেখলে ঈর্ষাকাতর হয়। ভক্তদের জন্য ভালো কাজ করব আর বাকিদের জ্বালাব।

পরীর মতে, অধিকাংশ আইডির অস্তিত্ব নেই, তাই তাদের কথায় তার কাজে প্রভাবও পড়বে না। সুন্দরী এ অভিনেত্রী বলেন, ‘যারা সাইবার বুলিং করে তারা নিজেদের হতাশা অন্যের ওপর চাপিয়ে দিতে চায়।’