বৈশাখে লাভলী দেবের গান

46

শোবিজ বাংলা ডেস্ক: দেশীয় লোকগানের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী লাভলী দেব গেলো মাসে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে তার সুরের ধারায় দারুন মাতিয়ে এসেছিলেন নিজ শহর সিলেটবাসীর। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের ১০১ তম জন্মবার্ষিকীতে ১৭ মার্চ তিনি সুরের ফল্গু ধারা ছড়িয়েছিলেন সিলেটের দুটি অনুষ্ঠানে। শিল্পী লাভলী দেব সিলেটের মরমী সাধকদের লেখা গান পরিবেশন করে মাতিয়েছিলেন অনুষ্ঠানে উপস্থিত কয়েক হাজার দর্শককে। এছাড়াও তিনি তার গাওয়া ‘দিল এর চোখে’ শীর্ষক নতুন গান দিয়েও শ্রোতা – দর্শক আর ভক্তমহলে দারুনভাবে আলোচনায় আছেন। এর ওপর নিয়মিত তিনি বিটিভিসহ বিভিন্ন বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে মিউজিক্যাল শো দিয়ে দর্শক মাতাচ্ছেন দেশ – বিদেশের মঞ্চ মাতানো লোকগানের জনপ্রিয় শিল্পী লাভলী দেব। দেশ – বিদেশ মাতানো লোকগানের জনপ্রিয় এই সংগীতশিল্পী এবার আলোচনায় এসেছেন জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী তপন চৌধুরীর সঙ্গে গাওয়া একটি ডুয়েট গান করে। এটি একটি সিলেটি ভাষার গান বলে জানান লাভলী দেব। আর তপন চৌধুরী চট্টগ্রামের মানুষ হলেও এবারই তিনি প্রথম সিলেটি ভাষার গান গাইলেন। যদিও তার শশুরবাড়ি সিলেটে।

লাভলী দেব জানান, সিলেট অঞ্চলের অনেক শ্রোতাপ্রিয় গানের জনপ্রিয় গীতিকার একে আনাম এর লেখা ও সুরে ‘ও সোনার চান্দে রে ও মায়ার চান্দে রে, চান্দে মায়া লাগাইছে’ এই গানে তিনি আর তপন চৌধুরী দ্বৈতকণ্ঠ দিয়েছেন। গানটির সংগীতায়োজন করেছেন তরুণ প্রজন্মের সংগীত পরিচালক শোভন রায়। এই গানটি সবার সামনে নিয়ে আসতে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করেছেন অডিও কোম্পানি প্রোটিউন এর কর্ণধার প্রসেনজিৎ ওঝা।

জানা গেছে, সিলেট অঞ্চলের এই জনপ্রিয় গানটি তপন চৌধুরী গাইবার ইচ্ছে প্রকাশ করেছিলেন। সিলেটের গান এবং সিলেটের মানুষের প্রতি ভালোবাসা থেকেই গানটি তিনি গেয়েছেন। লাভলী দেব জানান, ইতিমধ্যে গানটির রেকর্ডিং সম্পন্ন হয়ে গেছে। এটি মিউজিক ভিডিও আকারে প্রোটিউন এর অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে রিলিজ হবে।

এই গানটি প্রসঙ্গে লাভলী দেব বলেন, দীর্ঘ সংগীত ক্যারিয়ারে এবারই প্রথম আমি তপন দা’র সঙ্গে দ্বৈত গান করলাম। শিল্পী তপন চৌধুরী সব সময়ই আমার কাছে প্রিয় একজন শিল্পী। ওনার সঙ্গে আগে দেখা হয়েছে, কথাও হয়েছে, কিন্ত গান গাওয়া হয়নি। তপন দা অসম্ভব ভালো মনের আর বিনয়ী মানুষ। অনেক সিনিয়রদের সঙ্গে কাজ করেছি, কিন্তু তপন দা সত্যিই আলাদা। তার সঙ্গে গান করে অসম্ভব ভালো লাগা কাজ করছে আমার মনে। সিলেটের এই জনপ্রিয় গানটি আবারও নতুন ভাবে একজন গুনী শিল্পীর সঙ্গে গাইতে পেরে অত্যন্ত ভালো লাগছে।

তিনি আরও বলেন, দারুন হয়েছে গানটি। এমন সুন্দর একটি গান করার বিষয়ে এগিয়ে আসার জন্যে আমি প্রসেনজিৎ ওঝার প্রতি আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞ। আশা করছি – এটি অসাধারণ একটি গান হিসেবে শ্রোতা – দর্শকদের প্রশংসা অর্জন করতে সক্ষম হবে।

প্রসেনজিৎ ওঝা বলেন, আমি সব সময়ই আমাদের শিল্পী এবং শেকড়ের সংস্কৃতির জন্যে কাজ করে যেতে চাই। লাভলী দি এবং তপন দা’র ডুয়েট গানটি আমার সেই চেষ্টারই একটা অংশ। লাভলী দেব জানান, তপন চৌধুরীর সঙ্গে এই ডুয়েট গান শেষ করার পর একসঙ্গে ছয়টি সিলেট অঞ্চলের গানের কাজ শুরু করেছেন। গানগুলোর সংগীত পরিচালনা করছেন বিনোদ রায়। গানগুলো হলো – সইগো রাধার মন্দিরে উদয় শ্যাম চিকন কালা, হায়রে বন্ধু কালাচান তোমার লাগি গেল প্রান রে, ও প্রান বৃন্দে আমার প্রাণ যায় প্রান বন্ধু বিনে, বালা নাচিয়া নাচিয়া পিয়ারি যায় রে হাছন রাজার পানে চায় রে, প্রাণ বন্ধু গেলো গো বৃন্দাবন মলিন করিয়া, বিনা দোষে দোষী আমি এ ভব সংসারে।

এই গানগুলো গাওয়ার বিষয়ে লাভলী দেব বলেন, আগে পাঁচটি গান করেছিলাম। এবার আরও ছয়টি গান করছি। এক্ষেত্রে আমি বলবো – যথারীতি সিলেটের জনপ্রিয় গানগুলো, যেগুলো আমার কমিটমেন্ট ছিল আবার নতুন করে জাতীয়ভাবে তুলে আনা। আমি সেই গানগুলোই করছি আবার।

নিজের গাওয়া প্রকাশিতব্য নতুন গান প্রসঙ্গে লাভলী দেব জানান, আসন্ন পহেলা বৈশাখ উপলক্ষ্যে প্রোটিউন এর ব্যানারে মুক্তি পাচ্ছে ‘আমার বন্ধু মহা যাদু জানে’ শীর্ষক গানটি। এই গানটির গীতিকার ও সুরকার খোয়াজ মিয়া। সংগীতায়োজন করেছেন শোভন রায়। এটি প্রোটিউন এর অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ হবে মিউজিক ভিডিও আকারে।

প্রকাশিতব্য বৈশাখের এই গানটি নিয়ে লাভলী দেব বলেন, দারুন জমজমাট একটি গান হয়ে হয়েছে এটি। যদিও করোনা পরিস্থিতি পার করছি আমরা, তবুও বলবো আমাদের লকডাউন সময়ে গানটি সবার ভালো লাগবে। সবশেষে আমার অনুরোধ – আসুন করোনা মহামারীর এই কঠিন সময়টা আমরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলে নিজেরা নিরাপদ থাকি, নিজেদের পরিবারকে নিরাপদ রাখি। স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যাওয়ার জন্যে এছাড়া আর বিকল্প নেই। সবাই ভালো থাকুন, পহেলা বৈশাখের শুভেচ্ছা সবাইকে।